মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

উপজেলা ভূমি অফিসের কার্য়ক্রম

 

০১

 

 

০২

০৩

 

০৪

নামজারী ও জমা খারিজ

(রেকর্ড সংশোধন ও হাল করন) সংক্রান্ত কার্যক্রম।

সরকারী খঅস জমি বন্দোবস্ত ও রক্ষনা বেক্ষন।

হাট-বাজারের চান্দিনা ভিটির একসনা ভিত্তিক লাইসেন্স প্রদান।

অর্পিত সম্পত্তির লীজ নবায়ন ও সংরক্ষন।

 

 

 

০৫

 

০৬

০৭

 

০৮

০৯

ভূমি উন্নয়ন করের দাবি ও আদায়ের জটিলতা নিরসন

বিবিধ মোকাদ্দমা সংক্রান্ত কার্যক্রম।

আবাসন , আশ্রায়ন , গুচ্ছগ্রাম ও আদর্শ গ্রাম সংক্রান্ত কার্যক্রম।

ভূমি রাজস্ব সংক্রান্ত তথ্য।

 সরকার নির্ধারিত সকল সেবা কার্যক্রম।

 

উপজেলা ভূমি অফিস এবং ইউনিয়ন ভূমি অফিস হতে নামজারী বা মিউটেশন এর  কাজ সম্পন্ন হয়

 

 

নামজারী করার আবেদন

v        জমি বিক্রয় বা অন্য কারনে হস্থান্তর হলে।

v        ভুমি মালিকের মৃত্যুর পর জমি ওয়ারিশদের মধ্যে বন্টনের ক্ষেত্রে।

v        জমির শ্রেনী পরিবর্তন হলে।

v        সরকার কর্তৃক ভুমি বন্দোবস্ত দেয়া হলে।

v        নামজারী ও জমা দুই ভাগে ভাগ করা যায়ঃ

v        আবেদনের প্রেরিতে

v        এল. টি নোটিশের মাধ্যমে।

 

নামজারীর জন্য করনীয়

 

v        সরআরী কমিশনার (ভুমি) বরাবরে দরথাস্ত করতে হবে।

v        দরখাস্তের সাথে নিম্ন বর্নিত কাগজ পত্রাদির মূল/ সার্টিফিকেট/ ফটোকপি জমা দিতে হবে।

v        জমির হস্তান্তর দলিল,প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বায়া/ পিট দলিল।

v        ওয়ারিশ সার্টিফিকেট।

v        ভুমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলা।

v        প্রয়োজনের পূর্ব মালিকের মৃত্যূর সনদ।

v        পূর্ব খতিয়ানের কপি।

v        প্রয়োজনে  জমির ফরায়েজ ও বন্টন নামা দলিল।

v        প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে আদালতের ডিক্রী/ রায় দলিল।

v        তফসিলে বর্নিত চৌহদ্দি সহ কলমি নকশা।

 

নামজারী ফি সমূহ

 

v        দরখাস্তের সংগে ৫.০০ টাকা কোট ফি দিতে হয়।

v        নোটিশ জারীর ফি ২.০০ টাকা ( ।নধিক ০৪ জনের জন্য ) পরবর্তি প্রতি জনের জন্য ০.৫০ টাকা

v        রেকর্ড সং শোধন ফি ২.০০ টাকা ।

v        খতিয়ান ফি ৪৩.০০ টাকা।

v        সর্বমোট ২৫০.০০ টাকা।

 

নামজারীর আবেদন নিস্পত্তির সময়সীমা

v         মালিকানা বিষয়ে কোন বিতর্ক না থাকলে আবেদন প্রাপ্তির তারিখ থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ কার্য দিবসের মধ্যে এবং প্রবাসীদের

জন্য ০৯ কার্য দিবসের মধ্যে কার্যক্রম সমাপ্ত করতে হবে।

ভূমি উন্ন্য়ন কর (খাজনা) এর হার

জমিতে স্বত্তের, ভূমি রেকর্ড ও অন্যান্য কারণে ভুমি উন্নয়ন কর প্রদান করা ভুমি মালিকের কর্তব্য।

(ক) কৃষি জমিঃ

               

কৃষি জমির পরিমান

হার

 

(ক) ৮.২৫ একর (২৫  বিঘা) পর্যন্ত

(খ)৮. ২৫ একরের উর্ধ্ব হতে ১০ একর পর্যন্ত

(গ)১০.০০ একরের উর্ধ্বে

ভুমি উন্নয়ন কর মওকুফ

প্রতি শতাংশ ০.৫০ টাকা

প্রতি শতাংশ ১.০০ টাকা

 

 

 

বিঃ দ্রঃ ৮.২৫ একর বা ২৫ বিঘা এবং তার চেয়ে কম জমির মালিকের জন্য ভুমি উন্ন্য়ন কর মওকুফ। কিন্তু ইচ্ছা করলে মালিকানার

          প্রমান পত্র হিসাবে খতিয়ান প্রতি ২/- টাকা রশিদ খরচ প্রদান করে কর মওকুফ সীল সম্বলিত দাখিলা গ্রহন করা যায়।

 

(খ) অকৃষি জমিঃ অকৃষি জমির জন্য আবাসিক ৫/- টাকা এবং বানিজ্যিক ১৫/- টাকা শতাংশ প্রতি খাজনা দিতে হবে।

ভুমি উন্নয়ন কর প্রদান পদ্ধতি

·         প্রতি বাংলা বছরের জন্য নির্ধারিত ভুমি উন্নয়ন কর ৩০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।

·         একসাথে এক বা একাধিক বছরের ভুমি উন্নয়ন কর প্রদান করা যায়।

·         তফসীল অফিসে ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তার কাছে জমির রেকর্ড পত্র দেখিয়ে ভুমি উন্নয়ন কর নির্ধারন পূর্বক টাকা জমা দিয়ে সমপরিমান টাকার দাখিলা গ্রহন করতে হয়।

·         কোন কারনে ভুমি উন্নয়ন কর বকেয়া থাকলে তা সুধ সহ পরিশোধ করতে হয়।

·         ভুমি উন্নয়ন কর  প্রধান কারীর নিজ নামে সংশ্লিষ্ট জমি নামজারী করা থাকলে ০১ (এক) দিনেই ভুমি উন্নয়ন কর জমা প্রদান করা যায়। পক্ষে অন্য কেউ এ ধরনের ভুমি  উন্নয়ন কর পরিশোধ করতে পারে।

·         ভুমি উন্নয়ন কর প্রদানকারীর (যদি তিনি ক্রয় বা অন্য সুত্রে মালিক হন) নামে সংশ্লিষ্ট নামজারী করা না থাকলে পূর্ব মালিক সর্ব শেষ রেকর্ডিয় মালিকের নামেই ভুমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করা যাবে।

কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত প্রাপ্তির নিয়মাবলী

# কৃষি খাস জমি ভূমিহীন পরিবারের মধ্যে বিনামূল্যে বিতরন করা হয়।

# কৃষি খাস জমি কারা  পাবেনঃ যে পরিবারের বসত বাড়ী ও কৃষি জমি কিছুই নেই, কিন্ত পরিবারটি কৃষি নির্ভর।

কৃষি খাস জমি প্রাপ্তিতে ভুমিহীন পরিবারের অগ্রাধিকার তালিকা

1.       দুঃস্থ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার।                                 ২. নদী ভাঙ্গা পরিবার (যার সকল জমি বিলিন হয়েছে)।

3.      সক্ষম পুত্রসহ বিধবা বা স্বামী পরিত্যক্তা পরিবার।       ৪. কৃষি জমিহীন ও বাস্তভিটাহীন পরিবার।

5.      অধিগ্রহনের ফলে ভুমিহীন হয়ে পরেছে এমন পরিবার।  ৬. ১০ শতাংশ বসত বাড়ী আছে কিন্ত কৃষিযোগ্য জমি নেই এরুপ কৃষি নির্ভর পরিবার।

 

কি করতে হবে

1.       উপজেলা ভুমি অফিস হতে নির্ধারিত ফরম বিনামূল্যে সংগ্রহ করে আবেদন করতে হবে।

2.      দরখাস্তটি ঠিকমত পূরণ করে ছবিসহ সরকারী কমিশনার ( ভূমি) অফিসে দাখিল করতে হবে।

3.      আবেদনের সাথে ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের নিকট হতে নাগরিক সনদ ও প্রত্যায়ন দাখিল করতে হবে।

 

 

                                             খাস জমি বন্দোবস্ত পদ্ধতি

 

ভুমিহীনদের দরখঅস্ত গ্রহন* তদন্ত সাপেক্ষে বাছাই ও সাক্ষাৎকার গ্রহন* তালিকা প্রদান* উপজেলা কমিটিতে পেশ*পূর্নাঙ্গীগ্রাধিকার তালিকা তৈরি*ভুমিহীনদের মধ্যে  প্লট বরাদ্ধ* কেস নথি সৃজন* জেলা প্রশাসকের অনুমোদন* কবুলিয়ত সম্পাদন ও দলিল রেজিষ্ট্রিকরন* নামজারী করন।

উল্লেখ্য এ বন্দোবস্ত কার্যক্রম সম্পন্ন হতে ২-৩ মাস সময় প্রয়োজন হতে পারে।

 

 

                                                                ু

 

 

                                                                বিভিন্ন সেবা ও ফি

পদবী/ কার্য

সেবা/ পরিসেবার বিষয়বস্ত

 

সেবা/ পরিসেবা প্রদানের

সময়সীমা( কর্মদিবস)

নির্ধারিত ফি

 

কানুনগো

# নামজারী কেসে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মতামত প্রদান

#সম্মানিত ভুমির মালিকগনের আবেদন মতে সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক

কর্তৃপক্ষের নিকট প্রতিবেদন দাখিল করা

০৩(তিন) দিন

 

১৫(পনের) দিন

নেই

 

নেই

 

     সার্ভেয়ার

# সরকারী ভুমির সাথে ব্যক্তিমালিকানা বিষয়ে বিরোধ মিমাংসার জন্য সরেজমিনে ভুমি পরিমান করা।

# বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশ মতে সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করা।

# বিবিধ মোকদ্দমার দখলীয় প্রতিবেদন দাখিল করা।

 

১৫ (পনের)দিন

 

১৫(পনের)দিন

 

১৫(পনের) দিন

নেই

 

নেই

 

নেই

 

নামজারী   সহকারী

নামজারীর দরখাস্ত গ্রহন করে প্রস্তাব / প্রতিবেদন প্রেরনের জন্য ইউনিয়ন ভুমি অফিসে প্রেরন। পরবর্তিতে ইউনিয়ন ভুমি অফিস হতে প্রাপ্ত প্রতিবেদন ও প্রস্তাব কানুনগোর মতামত গ্রহন পূর্বক সহকারী কমিশনার (ভুমি) এর নিকট উস্থাপন ।

 

৪৫(পয়তাল্লিশ) দিন

 

নেই

পত্র প্রাপ্তি ও প্রেরন চিঠি গ্রহন/ বিলি

ভুমি সংক্রান্ত চিঠি পত্র/ আবেদন যথাসময়ে কর্তৃপক্ষের নিকট উপস্থাপন পুর্বক আদেশ মোতাবেক ভিন্ন ভিন্ন শাখায় বিতরণ।

 

০২(দুই) দিন

 

নেই

হাট/ বাজার/ চান্দিনা ভিটি

হাট বাজারের পেরিফেরী করন, চান্দিনা ভিটির একসনা লাইসেন্স ইজারা প্রদান।

কর্তৃপক্ষের নির্দেশ মোতাবেক নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে

নেই

উচ্ছেদ কার্যক্রম

খাস জমি চিহ্নিতকরন পূর্বক অবৈধ দখলদারের উচ্ছেদ কার্যক্রম গ্রহন করা।

 

জরুরী ভিত্তিতে

নেই

অর্পিত সম্পত্তি

অর্পিত সম্পত্তি তালিকা সংরক্ষন, লীজের নথি নবায়ন পুর্বক লীজের টাকা আদায় করা।

দ্রুত

নেই

বিবিধ মোকদ্দমা

বিবিধ নামজারী ও জমাভাগ কেসে ভুলত্রুটি সংশোধনের আবেদন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ মোতাবেক বিবিধ মোকদ্দমা রুজু পূর্বক প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহন করা।

০২(দুই) দিন

নেই

ভুমি উন্নয়ন কর

বাৎসরিক ভুমি উন্নয়ন করের দাবী নির্ধারন পুূর্বক দাবী আদায়ের সার্বিক কার্যক্রম গ্রহন করা।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে

নেই

 

 

অন্যান্য কার্যাবলিঃ

 

আশ্রায়ন / আবাসনঃ কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের আলোকে আশ্রায়ন/ আবাসন এর ভুমি চিহ্নিত করে বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বরাবরে প্রেরন করা। প্রস্তাব  অনুমোদিত হলে নির্ধারিত কমিটির মাধ্যমে আশ্রায়ন/ আবাসন প্রকল্পে ভুমিহীন পরিবারগনের বরাবর দলিল সম্পাদন পুর্বক বসবাসের ব্যবস্তা গ্রহন করা।

আদর্শ গ্রাম সৃজনঃ কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে ভুমি চিহ্নিতকরন পুর্বক আদর্শ গ্রাম সৃজনের জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট প্রস্তাব প্রেরন করা।

সায়ারাত মহালঃ ফেরিঘাট/ খেয়াঘাট ইজারা ব্যবস্থাপনা স্থানীয় সরকার বিভাগের নিকট ন্যস্ত রয়েছে।তবে খেয়াঘাট/ ফেরিঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এর কার্যালয় হতে ইজারা দেয়া হলে ইজারালব্দ অর্থের ৫% টাকার হিসাব এ কার্যালয়ের সায়রাত রেজিষ্টারে সংরক্ষন করা।

জলমহালঃ জলমহাল/ বায়ুমহাল এর ইজারা কার্যক্রম উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে প্রদান করা হয়।

 

দলিলের বিভিন্ন রকম শব্দের অর্থ

 

চিহ্ন

আনা

চিহ্ন

 

আনা

সাং=সাকিন

গং= অন্যারা/সমুহ

মোং=মোকাম

এজমালি=যৌথ

কিস্তা= অংশ

হং= হিস্যা

দং= দখল

মাং= মারফত

মং= মোট

জমা খারিজ=যৌথখতিয়ানের জমা থেকে কোন সহ মালিক বা অংশিদারের অংশ আলাদা করে নতুন জমা বা খতিয়ানের সৃষ্টি করা।

কিঃ = কিন্ত।

কিক্তা/কিতা= অংশ,হজমি ভাগ

ছানি= দ্বিতীয় বার

ছোলেনামা= আপোষ/ মিমাংসা

জঃ = জমা

তমঃ =তমসুক

নিমঃ= অল্প

নং= নম্বর

পঃ= পঞ্চম

মহঃ =  মহকুমা

হিঃ = হিসাব

চৌঃ= চৌহদ্দি

তঃ/তপঃ= তপসিল

বিতং= বিস্তারিত বিবরন

সহঃ = সহকারী

হলফ= শশফত

 

 

 

এক আনা

 

 

নয় আনা

 

দুই আনা

 

 

দশ আনা

 

তিন আনা

 

 

এগার আনা

 

চার আনা

 

 

বার আনা

 

পাঁচ আনা

 

 

তের আনা

 

ছয় আনা

 

 

 চৌদ্দআনা

 

সাত আনা

 

 

পনের আনা

 

আট আনা

 

 

 ষোলআনা

জমি পরিমাপের বিভিন্ন পদ্ধতি

 

মেট্রিক পদ্ধতি

প্রচলিত পদ্ধতি

পুরনো পদ্ধতি

১ একর = ১০০ শতাংশ

১ হেক্টর = ২৪৭ শতাংশ

১ এয়র = ২.৪৭ শতাংশ

১ বিঘা = ৩৩    শতাংশ

১ বিঘা = ২০ কাঠা

১ একর = ৩.৩৩ বিঘা

১ আনা = সম্পুর্ন অংশ

১ আনা = ২০ গন্ডা

১ গন্ডা = ৪ কড়া

১ কড়া = ৩ ক্রান্তি

১ ক্রান্তি = ২০ তিল

 

বিঃ দ্রঃ দরখাস্ত জমা দেয়ার দিন থেকে ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে মিউটিশন কেস নিস্পত্তি না হলে, অতিরিক্ত কোন অর্থ দাবী করা হলে, অতিরিক্ত ভুমি উন্নয়ন কর দাবি করলে বা অন্য কোন অভিযোগ থাকলে সহকারী কমিশনার (ভুমি)/ উপজেলা নির্বাহী অফিসার/ রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টের/ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( রাজস্ব) অথবা জেলা প্রশাসকের সাথে যোগাযোগ করুন।

কর্মকর্তার পদবী

ফোন নম্বর

ফ্যাক্স নম্বর

জেলা প্রশাসক

০৪৬৮-৬৩৩০০

০৪৯৮-৬৩৪২৬

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( রাজস্ব)

০৪৯৮-৬৩৩০৩

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

০৪৯৫-২৫৬০০১

০৪৯৫২-৫৬০৬৯

রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর

০৪৯৮-৬৩২৬৫

 

সহকারী কমিশনার( ভুমি)

০৪৯৫২-৫৬০০৪

 

 

তারিখঃ ১৮ পৌষ ১৪ ১৯

         ১ জানুয়ারি ২০১৩                                                                                            সহকারী কমিশনার (ভুমি)

                                                                                                                             কাঠালিয়া, ঝালকাঠী।


Share with :

Facebook Twitter